ঢাকা সোমবার, মে ২৫, ২০২০



ত্রিপক্ষিয় বৈঠকে এপ্রিল মাসের বেতন সম্পর্কিত সিদ্ধান্ত শ্রমিকদের হতাশ করেছে: বিগফ

ডেস্ক রিপোর্ট: গত ২৮ এপ্রিল সরকার-মালিক-শ্রমিক ত্রিপক্ষিয় বৈঠকে শ্রম প্রতিমন্ত্রি মন্নুজান সুফিয়ান এপ্রিল মাসের বেতন সম্পর্কিত যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তা শ্রমিকদের হতাশ করেছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ মুক্ত গার্মেন্ট শ্রমিক ইউনিয়ন ফেডারেশন (বিগফ) নামে একটি সংগঠন।

মহান মে দিবস উপলক্ষে বিগফ কতৃক দেয়া এক বিবৃতিতে সংগঠনটি এ কথা জানায়। এতে বলা হয়, করোনা মহামারীর কারণে পোশাক শিল্প ও শ্রমিকরা আজ হুমকির মধ্যে পড়েছে। লকডাউনে এই সময়ে শ্রমিকদের ৪০% মজুরি কর্তনের সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক ও অমানবিক।

এতে আরও উল্লেখ করা হয়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বানিজ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাসের এই মহামারীর সময়ে শ্রমিকদের চাকুরী থেকে ছাঁটাই বা কর্মচ্যূত করতে নিষেধ করলেও গার্মেন্টস মালিকগণ উক্ত আদেশ ও নির্দেশকে অগ্রাহ্য করে অমানবিক ভাবে ঢাকা, আশুলিয়া, সাভার, গাজিপুর, নারায়নগঞ্জ ও চট্টগ্রাম এর বিভিন্ন কারখানা থেকে ইতিমধ্যেই ২৫ হাজারের অধিক শ্রমিককে ছাঁটাই/কর্মচ্যুত করেছেন। প্রতিদিন কোন না কোন কারখানা ছাঁটাই/কর্মচ্যুত করে যাচ্ছেন বলে শ্রমিকগণ অবহিত করছেন যা বর্তমান পরিস্থিতিতে শ্রমিকদের জীবন জীবিকায় ভয়াবহ দূর্যোগ সৃষ্টি করেছে।

বিবৃতিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে বাংলাদেশ মুক্ত গার্মেন্ট শ্রমিক ইউনিয়ন ফেডারেশন (বিগফ) এর পক্ষ থেকে নিম্নোক্ত ৭ দফা  দাবীও তুলে ধরা হয়-

১. মহামারীর সময়কালীন বাংলাদেশ শ্রম আইন এর ধারা ৩২৪ অনুসারে পোশাক শিল্পে শ্রম আইনের ১২, ১৬, ২০, ২৬ ও ২৭(৩)(ক) ধারার প্রয়োগ স্থগিত করে গেজেট নোটিফিকেশন জারী করার দাবী।

২. সাধারন ছুটির দিনগুলিতে শ্রমিকদের পূর্নকালীন মজুরী নিশ্চিত করার দাবী।

৩. শ্রমিকদের ছাটাই/চাকুরীচ্যুত বন্ধ করতে হবে। ইতিমধ্যে যে সকল শ্রমিককে ছাটাই/চাকুরীচ্যুত করা হয়েছে, তাদেরকে

অবিলম্বে পূনর্বহাল করতে হবে।

৪. ১৫ই মে,২০২০ এর মধ্যে শ্রমিকদের বকেয়া মজুরীসহ ঈদ বোনাস প্রদান করতে হবে।

৫. অবিলম্বে গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য রেশন সুবিধা চালু করতে হবে।

৬. করোনায় আক্রান্ত শ্রমিকদের চিকিৎসার দায়িত্ব মালিক ও রাষ্ট্রকে নিতে হবে।

৭. করোনা আক্রান্ত শ্রমিকদের মৃত্যুতে সর্বোচ্চ ক্ষতিপূরন দিতে হবে।

Comments


আর্কাইভ